সাইকেল কিনতে হলে কি করবেন।

আবুল হোসেন আসাদঃ সময়ের নিয়মে বদলেছে দ্বিচক্রযান বা সাইকেলের ধরন। বাহারি রঙে, নানা ঢঙের দুই চাকার সাইকেল এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। তাই বাইসাইকেল কেনার আগে প্রয়োজন বুঝে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনাকেই।

স্রেফ পিচঢালা রাস্তায় চলার জন্য রয়েছে রোড বাইক, আর উঁচু–নিচু, ঢালু বা পাহাড়ি পথ পাড়ি দিতে প্রয়োজন মাউন্টেন বাইক। মাউন্টেন বাইক এবং রোড বাইকের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সুবিধাদি একত্র করে তৈরি হয়ে থাকে হাইব্রিড বাইক। দ্রুতগতিতে চলার জন্য রয়েছে চিকন চাকার ও হালকা ওজনের বাইসাইকেল, যা রেসিং সাইকেল বা স্পোর্টস বাইক নামে পরিচিত।

যেখানে মিলবে সাইকেল

সাইকেলের সবচেয়ে বড় বাজার ঢাকার বংশালে। বংশালে বিভিন্ন মডেলের দেশি–বিদেশি সাইকেল এবং সাইকেলের খুচরা যন্ত্রাংশ পাওয়া যায়। বংশাল ছাড়াও ঢাকা, চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে এমনকি দেশের বিভিন্ন এলাকাতে রয়েছে সাইকেলের শোরুম। রাজধানী ঢাকার ধানমন্ডি ও গুলশানে সাইকেলের দোকানগুলোতে নামীদামি ব্র্যান্ডের সাইকেল পাওয়া যায়। এগুলোর মধ্যে সাইকেল লাইফ এক্সক্লুসিভ, বাইসাইকেল শপ বডি, লায়ন সাইকেল, মাস্টার হুইল, সাইকেল এক্সক্লুসিভ, জিএস ইম্পেক্স, দি বাইক হাউস উল্লেখযোগ্য। সাইকেলের মূল্য দশ হাজার থেকে কয়েক লাখ টাকা পর্যন্ত। ফর্ক, সাসপেনশন, শিফটার, টায়ার, স্টিল ফ্রেম, অ্যালুমিনিয়াম ফ্রেম, কার্বন ফাইবার ফ্রেম, গিয়ার কম–বেশি হওয়া, গতি ও ওজনের পার্থক্যের কারণসহ নানা কারণে সাইকেলের দামের পার্থক্য হয়ে থাকে।

নবীনদের জন্য পরামর্শ

যারা সাইকেল চালাতে চায় বা নতুন সাইকেল চালানো শিখেছে, তাদের প্রচণ্ড উৎসাহ থাকে দ্রুতগতিতে সাইকেল চালানো। মনে রাখবেন, দ্রুতগতিতে সাইকেল চালানো উচিত নয়। কারণ, দ্রুতগতি সব সময় দ্রুততার সঙ্গে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে থাকে।

সাইকেল রেসের জন্য দ্রুত চালাতে হলে গাড়ির সংখ্যা কম যেসব সড়কে, সেখানে চর্চা করা যেতে পারে। একেবারে নতুনদের সাইকেলের ভারসাম্য ও দক্ষতা পুরোপুরি আয়ত্ত না হওয়া পর্যন্ত বড় রাস্তায় কিংবা মহাসড়কে সাইকেল চালানো একেবারেই উচিত নয়। সাইকেল চালানোর সময় হেলমেট, গ্লাভস ও চশমা পরে নিতে ভুলবেন না।

Leave a Reply